মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভিজিডি

দুঃস্থ মহিলা উন্নয়ন কর্মসূচি (ভিজিডি):

October 13, 2013

ভিজিডি কর্মসূচি একটি জাতীয় কর্মসূচি, যার ব্যাপ্তি সমগ্র বাংলাদেশে। বাংলাদেশ সরকার খাদ্য সম্পদের যোগান দিচ্ছে। খাদ্য সম্পদের পাশাপাশি বেসরকারী সংস্থার (NGO) মাধ্যমে উন্নয়ন প্যাকেজ (প্রশিক্ষণ, ঋণ ইত্যাদি) সেবায় অর্থায়ন করছে।

ভিজিডি কর্মসূচি, বাংলাদেশের গ্রামীণ দুঃস্থ মহিলাদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বাসত্মবায়িত একটি বৃহত্তর সামাজিক নিরাপত্তামূলক কর্মসূচি (A safety net programme with development orientation) যেটি সম্পূর্ণরূপে আর্থ-সামাজিকভাবে দুঃস্থ পরিবার বিশেষত: মহিলাদের উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে। মহিলারা ওয়ার্ড-ভিত্তিক ক্ষুদ্র দলের মাধ্যমে ইউনিয়ন পরিষদ ভিজিডি কমিটি কর্তৃক নির্বাচিত হয়। ভিজিডি মহিলারা প্রশিক্ষণ প্যাকেজ (প্রশিক্ষণ, সঞ্চয়, ঋণ) সেবা গ্রহণের পাশাপাশি ২৪ (চব্বিশ) মাস ধরে মাসিক ৩০ কিলোগ্রাম গম/চাল খাদ্য সহায়তা পেয়ে থাকে। এই ২৪ (চব্বিশ) মাস সময়কালকে একটি ভিজিডি চক্র হিসাবে গণ্য করা হয়। খাদ্য সহায়তা প্রাপ্তির ২৪ (চব্বিশ) মাসকালে, ভিজিডি মহিলারা অনুমোদিত NGO-†`i মাধ্যমে জীবন দক্ষতা ও আয় বৃদ্ধিমূলক দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য প্রশিক্ষণ পেয়ে থাকে।

খাদ্য সহায়তা প্রাপ্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর এই মহিলারা সরকারী / বেসরকারী সংস্থা কর্তৃক বাসত্মবায়িত উন্নয়ন কর্মসূচির বিভিন্ন কর্মকান্ডে পূর্ণাঙ্গভাবে অনর্ত্মভূক্তির যোগ্যতা অর্জন করে। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়াধীন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ভিজিডি বানত্মবায়ন ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করে। এই কর্মসূচীর আওতায় প্রতি ২৪ (চব্বিশ) মাস সময়কালের চক্রে ৭,৫০,০০০ (সাত লাখ পঞ্চাশ হাজার) মহিলা খাদ্য সহায়তা পায়। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় ভিজিডি কর্মসূচীর পরিকল্পনা, ব্যবস্থাপনা এবং বাসত্মবায়ন প্রক্রিয়া mgš^q করে।

ভিজিডি কর্মসূচীর উদ্দেশ্য :

ভিজিডি কর্মসূচীর দীর্ঘমেয়াদী উদ্দেশ্য হলো ‘To make Positive change in livelihood of Ultra poor women with attention to protect further deterioration of living condition’


Share with :

Facebook Twitter